Leave a comment

Salafi Wahabism has contributed nothing to culture and civility, but destruction.

SALAFI WAHABISM HAS CONTRIBUTED NOTHING TO CULTURE AND CIVILITY, BUT DESTRUCTION.

Salafi Wahabis Exposed

Salafi Wahabism has a hatred for culture, especially poetry, literature and architecture associated with praising the Prophet (saw) of Islam. They have taken every opportunity to ransack, destroy and demolish anything associated with praising the Prophet (saw) in the name of combating shirk (polytheism) and bidah (innovation)

Salafi Wahabi repeatedly desecrated graves, burnt books, demolished architecture, destroyed calligraphy and attacked poetry praising the Prophet (saw). But their hatred culture is specifically confined to anything which praises the Prophet (saw).

An example of this would be leading Salafi Wahabi websites praising the poetry of Rudyard Kiplings whilst in the same breath attacking and vilifying poetry praising the Prophet (saw). For example the vitriol aimed against the Qasidah Al-Burdah specifically praising the Prophet (saw) has been relentless and without bounds, this is despite the fact this poem has been accepted by the Ummah, both the awaam (laypeople) and Ulema (jurists)

Is it…

View original post 153 more words

Leave a comment

ইসলামের ফরয বিঁধান যাকাত সম্পর্কে জানুন এবং যাকাত আদায় করুনঃ

৭.৫ তোলা = ৮৫ গ্রাম। ৫২.৫ তোলা/ভরি = ৫৯৫ গ্রাম।

ইসলামের পথ (islamerpoth)

যাকাত মুসলমানদের উপর ইসলামের একটি ফরয বিধান। সবার অবগতির জন্য এ সম্পর্কে সংক্ষেপে আলোচনা করা হল।

কি পরিমান সম্পদ এক বছর মালিকানায় থাকলে যাকাত দিতে হবে (কাদের ওপর যাকাত ফরয)।
সাধারণত ৫২.৫ তোলা রূপা বা ৭.৫ তোলা স্বর্ণ বা উভয়টি মিলে ৫২.৫ তোলা রূপার সমমূল্যের সোনা, রূপা, হীরা অথবা নগদ অর্থ থাকলে সে সম্পদের যাকাত দিতে হয়। তবে কৃষিজাত ফসল, খনিজ সম্পদ ইত্যাদির যাকাত (উশর) প্রতিবার ফসল তোলার সময়ই দিতে হবে। ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানে ও কোম্পানীর ক্ষেত্রে বছর শেষে উদ্বর্তপত্রে (Balance Sheet) বর্ণিত সম্পদ ও দায়-দেনা অনুসারে যাকাতের পরিমাণ নির্ধারিত হবে। সঞ্চিত সম্পদ কারো মালিকানায় এক বছরের মেয়াদ পূর্ণ হলেই যাকাত আদায় করতে হবে, পরবর্তী বছরের সাথে বকেয়া করা উচিত নয়। সঞ্চিত সম্পদ আগামী বছর কতটুকু বৃদ্ধি পেতে পারে তা যদি আগেই নিরূপণ করা যায় তবে অগ্রিম যাকাতও আদায় করা যায়। যাকাত প্রদানকারী ব্যক্তি যাকাত গ্রহণকারীদের কাছ থেকে কোনরূপ প্রতিদান, প্রশংসা অথবা কৃতজ্ঞতা গ্রহন করতে পারবেনা, কারন

View original post 308 more words

Leave a comment

মৃত ব্যক্তির কাযা নামায বিষয়ে সন্তানদের করণীয় কী?

মৃত ব্যক্তির কাযা নামায বিষয়ে সন্তানদের করণীয় কী?

ফিকহী মাসায়েল

প্রশ্ন

এক ব্যক্তি মারা গেছে, তার যিম্মায় বেশ কিছু নামায কাযা ছিল। মৃত্যুর সময় ছেলেদের একথা জানিয়ে গেছে। এখন ছেলেদের কী করণীয়? যদি না জানিয়ে যেতে তাহলেই বা কী করণীয় ছিল?

উত্তর

بسم الله الرحمن الرحيم

যদি মৃত ব্যক্তি তার সম্পদ থেকে তার নামাযের কাফফারা আদায়ের জন্য অসিয়ত করে যায়, আর তার নিজের মালও ছিল। তাহলে তার এক তৃতীয়াংশ সম্পদ থেকে কাফফারা আদায় করতে হবে।

আর যদি তার কোন সম্পদ না থাকে, বা সে মাল রেখে গেছে কিন্তু কোন কাফফারা আদায়ের অসিয়ত করে যায়নি। তাহলে মৃত ব্যক্তির পক্ষ থেকে কাফফারা আদায় করা আত্মীয়দের উপর জরুরী নয়। তবে স্বজনদের কাফফারা আদায় করে দেয়াই উত্তম। এর দ্বারা মৃত ব্যক্তি শান্তি পায়।

কাফফারার পরিমাণ হল, প্রতিদিন বিতরসহ ছয় ওয়াক্ত নামায হিসেব করে প্রত্যেক ওয়াক্তের জন্য পৌনে দুই সের গম বা আটা অথবা এর বাজার মূল্য গরীব মিসকিনকে মালিক বানিয়ে দিতে হবে। অথবা প্রতি ওয়াক্তের বদলে একজন গরীবকে দুই বেলা তৃপ্তি সহকারে খানা খাওয়াতে…

View original post 54 more words

Leave a comment

সুদ খাওয়ার ৭০টি গুনাহের মধ্যে ১টি হচ্ছে নিজ মায়ের সাথে যিনা করা…এটা কি গুনাহের ভয়াবহতা বুঝাতে বলা হয়েছে…নাকি আসলেই সমান গুনাহ?

সুদ থেকে অর্জিত এক দিরহাম পরিমাণ অর্থ ইসলামের দৃষ্টিতে ৩৬ বার ব্যভিচার করা অপেক্ষা গুরুতর অপরাধ…[ইবনে মাজা, বায়হাকী]

IslamQABangla

সুদ খাওয়ার ৭০টি গুনাহের মধ্যে ১টি হচ্ছে নিজ মায়ের সাথে যিনা করা…এটা কি গুনাহের ভয়াবহতা বুঝাতে বলা হয়েছে…নাকি আসলেই সমান গুনাহ?

সকল প্রশংসা একমাত্র আল্লাহ্‌র জন্য।

পূর্বের রাসূলগনের মধ্যেও সুদ হারাম ছিল এবং বর্তমানেও হারাম আছে, যা প্রত্যেক মুসলিম জানে।

পবিত্র কুরআনে আল্লাহ্‌ বলেছেন:
বস্তুত: ইয়াহুদীদের জন্যে আমি হারাম করে দিয়েছি বহু পবিত্র বস্তু যা তাদের জন্যে হালাল ছিল, তাদের পাপের কারনে এবং আল্লাহ্‌র পথে অধিক পরিমানে বাধা দেয়ার দরুন। আর এ কারনে যে তারা সুদ গ্রহন করত। অথচ এ ব্যাপারে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছিল এবং এ কারনে যে, তারা অপরের সম্পদ ভোগ করত অন্যায় ভাবে। বস্তুত: আমি কাফিরদের জন্য তৈরি করে রেখেছি যন্ত্রণাদায়ক আযাব…[সূরা আন-নিসা: ১৬০-১৬১]

কুরআনে আরও আছে:
হে বিশ্বাসীগণ! তোমরা চক্রবৃদ্ধি হারে সুদ খেয়ো না এবং আল্লাহকে ভয় কর। যাতে তোমরা সাফল্য লাভ করতে পার…(সুরা আলে ইমরান-১৩০)

সুদ একটি মারাত্মক পাপ, যার দ্বারা ক্ষতি সাধন হয় মানুষের ব্যক্তিগত জীবনের, সামাজিক জীবনের এবং রাষ্ট্রীয় জীবনের।

এর ভয়াবহতা সম্পর্কে কুরআনে…

View original post 588 more words

Leave a comment

The Rafidi heresies sourrounding Laylat Al-Qadr – Hideous as usual

In the name of Imam Ja’far Al-Sadiq =====>> ‪#‎Rafidi‬ ….. ‪#‎Shia‬ ….
how can Al-Sadiq teach people to call Imam no. 7,8,9,10,11 and even the twelfth Imam when none of them (those after Al-Sadiq) were born yet (at his time)?!?

You have probably seen it, especially in this age of social networks. The thing the Rafidah do in Ramadhan. Yes, it’s about the hideous and (obviously) heretical looking practice of the so called ‘true followers of the Sunnah, the followers of the Ahl Al-Bayt” etc. on the (awaited) night of Laylat Al-Qadr when they put the Qur’an on their heads (instead of reciting them, they recite Shirki Du’as), similar to to donkeys and the Yahood:

tefilin-199x300

The Sabaite Rafidah have taken this practice from the Jews. What you see above is a Jew and the thing on his head is actually (parts) of the Torah! That thing is called “tefillin” (mentioned in the Torah as “totafos”, and often seen in English translations as “frontlets”). They contain parchments with verses from the Torah. During the weekday morning service, one of the boxes (the “Hand t’filluh”) is placed upon the
left arm…

View original post 2,684 more words

Leave a comment

এক জ্বীনের বাদশা, হাজারো প্রতারণার গল্প!

শাহ-আলম ওরফে জীনের বাদশার ধোঁকায় পড়েছিল যারা ====>>
ঢাকা সিটি কলেজের একজন শিক্ষকের কথা। র‌্যাবের কাছে দেয়া এক লিখিত আবেদনে তিনি বলেছেন শাহ আলম এবং দুলাল কৃষ্ণ ওরফে খলিল তার কাছ থেকে ৩ কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। চিকিৎসা এবং ধাতব মুদ্রার বিনিময়ে অনেক মুনাফার প্রলোভন দেখিয়ে এ শিক্ষকের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ অর্থ নিয়ে যাওয়া হয়। একজন শিক্ষক কেমন করে এত টাকার মালিক হয়ে গেলেন? সম্পদের উৎসের ভয়, আবার কোন ঝামেলায় ঝড়িয়ে পড়েন এ দুই ঝামেলার ভয়ে তিনি সাংবাদিকদের এড়িয়ে যান। …

Amader Jhalakati News

মো. আতিকুর রহমান:জ্বীনের বাদশা শাহআলম ও তার বিলাসবহুল বাড়িঝালকাঠি : ঢাকাসহ বিভাগ, জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে থাকা ছোট ছোট আঞ্চলিক দল বা গোষ্ঠির মধ্যে আঞ্চলিক পর্যায় থেকে সারাদেশে নীরবে জাল বিস্তৃত করেছে শাহ আলম ও তার বাহিনী। জ্বিন হাজিরের নামে বিভিন্ন স্থানে চালিয়েছে প্রতারণা। যিনি এলাকায় “কানা আলম”, “আলম চেয়ারম্যান”, “জ্বীনের বাদশা শাহআলম” নামে পরিচিত। তার প্রতারণার ধরণ এতই বিচিত্র এবং অভিনব যে, সবরকম রোগের চিকিৎসা দেবার ক্ষমতা রাখেন তিনি। এর কবল থেকে এমবিবিএস ডাক্তার, অধ্যাপক, সাধারণ মানুষ কেউই বাদ পড়ে নি।

অনুসন্ধানে জানাগেছে, খুলনার আলোচিত চরিত্র এরশাদ সিকদারের সাথে যোযোগ ছিল শাহ আলমের। সেই সূত্রেই বাহিনী গঠন, পরিচালনা, দখল, নিয়ন্ত্রণের প্রাথমিক ধারণার তালিম (শিক্ষা) নেন তার কাছ থেকে। ২০০৪ সালে কারাগারে এরশাদ সিকদারের ফাসি কার্যকর হয়ে যাবার পর শাহআলম নিজের মত করে দল গোছাতে শুরু করেন। তার অনেক আগ থেকেই নিজের অবস্থান নীরবে তৈরী করতে থাকে শাহ আলম। ১৯৯৯ সালে রাজাপুরের শুক্তাগড় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানও নির্বাচিত হয়ে যায় সে।

View original post 1,489 more words

Leave a comment

প্যারাসিটামল + ক্যাফেইন (বিপি) Paracetamol + Caffeine (BP)

প্যারাসিটামল এবং ক্যাফেইন একটি দ্রুত কার্যকর ও নিরাপদ ব্যথানাশক ঔষধ যার জ্বর উপশমকারী কার্যকারিতা রয়েছে।

ড্রাগ ডিরেক্টরী বিডি - Drug Directory BD

বর্ণনা [Description] : প্যারাসিটামল এবং ক্যাফেইন একটি দ্রুত কার্যকর ও নিরাপদ ব্যথানাশক ঔষধ যার জ্বর উপশমকারী কার্যকারিতা রয়েছে। ইহা বিশেষভাবে সেই সমস্ত রোগীদের ক্ষেত্রে উপযোগী যারা কোন কারণে এসপিরিন অথবা অন্যান্য ব্যথানাশক সহ্য করতে পারেনা। ক্যাফেইন এর ইপস্থিতি প্যারাসিটামলের কার্যকারিতাকে বৃদ্ধি করে।

ব্যবহার [Use] : মাথাব্যথা, মাইগ্রেন, দাঁতে ব্যথা, নিউরালজিয়া, সোর থ্রোট, পিঠ ব্যথা, জ্বর, ঠান্ডা এবং ফ্লু এর ব্যথা।

গ্রহনমাত্রা [Dose] : প্রাপ্ত বয়স্কঃ ১-২ টি ট্যাবলেট প্রতি ৪-৬ ঘন্টা পরপর। দৈনিক সর্বোচ্চ মাত্রা ৪ গ্রাম (৮ টি ট্যাবলেট)।

প্রতিক্রিয়াসতর্কতা [Adverse Effects & Precautions] : প্যারাসিটামলের পার্শ প্রতিক্রিয়া সমূহ সাধারণতঃ মৃদু, যদিও হেমাটোলজিক্যাল রিয়্যাকশন যেমন, থ্রম্বোসাইটোপিনিয়া, লিউকোপিনিয়া, প্যানসাইটোপিনিয়া, নিউট্রোপিনিয়া এবং এগ্রানুলোসাইটোসিস এর রিপোর্ট রয়েছে। প্যানক্রিয়াটাইটিস, স্কিন রাস‌ এবং অপরাপর এলার্জিক রিয়্যাকশন মাঝে মাঝে দেখা যায়। নিম্নলিখিত ক্ষেত্রে প্যারাসিটামল এবং ক্যাফেইন সতর্কতার সাথে গ্রহন করা উচিত। যকৃত ও কিডনির সমস্যায়, অন্যান্য হেপাটোটক্সিক ঔষধ গ্রহনকারী রোগীদের ক্ষেত্রে।

প্রতিনির্দেশনা [Contra-indication] : বৃক্কের মারাত্নক অকার্যকারিতা ও যকৃতের অসুখ (ভাইরাল হেপাটাইটস)-এ…

View original post 202 more words

%d bloggers like this: